Friday || June 25, 2021 Online Tech News Portal
img

উহানে ফের করোনার হানা, ১ কোটি ১০ লাখ মানুষকে পরীক্ষার পরিকল্পনা

Posted on : 2020-05-13 10:04:54

News Source : বাংলাদেশ প্রতিদিন, ১৩ মে, ২০২০ ০৮:৩৫

উহানে ফের করোনার হানা, ১ কোটি ১০ লাখ মানুষকে পরীক্ষার পরিকল্পনা

চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান শহরে গত বছরের ৩১ ডিসেম্বরে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। শহরটিতে ১ কোটি ১০ লাখ মানুষের বাসবাস। এবার এই বিশাল সংখ্যক অধিবাসীর প্রত্যেকের করোনাভাইরাস পরীক্ষার করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার বিবিসি এ তথ্য জানায়।

জানা গেছে, পরিকল্পনাটি এখনও প্রথম ধাপে রয়েছে। ১০ দিনের মধ্যে কীভাবে পরীক্ষা করা সম্ভব এর বিস্তারিত জানতে চাওয়া হয়েছে উহানের সব জেলার কাছে।

৩ এপ্রিল থেকে উহানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী না থাকলেও এ সপ্তাহের শুরুতে ছয়জন রোগী শনাক্ত হওয়ায় এ পরিকল্পনা নিলো শহরটি।
করোনা ভাইরাসের ব্যাপক প্রাদুর্ভাব শুরুর পর ১১ সপ্তাহ কঠোর লকডাউনে ছিল উহান। নতুন রোগী না থাকায় গত ৮ এপ্রিল লকডাউন তুলে দেওয়া হয়। প্রথমদিকে মনে হচ্ছিল স্বাভাবিক জীবনযাপনে ফিরছে উহান। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খোলে এবং অর্থনৈতিক কার্যক্রম ফের সচল হতে শুরু করে। চালু হয় গণপরিবহন। কিন্তু একটি আবাসিক এলাকা থেকে নতুন করে ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ায় জীবনযাপনের স্বাভাবিকতা আবারও ঝুঁকির মুখে পড়েছে।

এ সংশ্লিষ্ট নথিতে উহানের জেলাগুলোকে ১০ দিনে করোনা পরীক্ষার বিস্তারিত পরিকল্পনার তথ্য মঙ্গলবার দুপুরের মধ্যে জমা দিতে বলা হয়। প্রতিটি জেলা এর অধিবাসীর সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে নিজস্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করবে। বর্তমানে জেলায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ না থাকলেও পরীক্ষা কার্যক্রম চলবে।

এই পরিকল্পনাকে নথিতে ‘১০ দিনের যুদ্ধ’ হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে। পরীক্ষার ক্ষেত্রে বয়স্ক ব্যক্তি এবং ঘনবসতিপূর্ণ এলাকাগুলোকে অগ্রাধিকার দিতে বলা হয়েছে। তবে বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেছেন, গোটা শহর পরীক্ষা করা দুঃসাধ্য ও ব্যয়বহুল হবে। উহান ইউনিভার্সিটির ঝংনান হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের (এইসিইউ) পরিচালক পেং ঝিয়ং বলেন, ‘শুধু স্বাস্থ্যকর্মী, ঝুঁকিতে থাকা এবং রোগীর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের পরীক্ষার আওতায় আনা হতে পারে।’

আরেক পরিচালক বলেন, ইতোমধ্যে যেহেতু উহানের প্রায় ৩০ থেকে ৫০ লাখ মানুষের পরীক্ষা করা হয়েছে, সেহেতু ১০ দিনের মধ্যে বাকি ৬০ থেকে ৮০ লাখ মানুষের পরীক্ষা করা ‘সম্ভব’।

আন্তর্জাতিক